ভিডিও গেইমের দৃশ্যকে ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধের ফুটেজ বলে সামাজিক মাধ্যমে প্রচার

কপিরাইট এএফপি ২০১৭-২০২২। সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত।

ফেসবুকে একটি ভিডিও ছড়িয়েছে যেখানে আকাশে যুদ্ধবিমান উড়তে এবং সেগুলোকে লক্ষ্য করে ভূমি থেকে ক্ষেপনাস্ত্র ছুঁড়ে ভূপাতিত করা চেষ্টা করা হচ্ছে বলে আপাত দৃষ্টিতে মনে হচ্ছে। এই ভিডিও পোস্ট করে দাবি করা হচ্ছে এসব দৃশ্য চলমান রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের সময় ধারণ করা। কিন্তু দাবিটি অসত্য। এটি মূলত 'আরমা ৩' নামে একটি কম্পিউটার সিমুলেশনের মাধ্যমে নির্মিত ভিডিও গেইমের ফুটেজ।

এরকম একটি ভিডিও গত ১৭ ফেব্রুয়ারি ফেসবুকে এখানে পোস্ট করা হয়।

পোস্টটির ক্যাপশনে লেখা হয়েছে: "রাশিয়ান বিমান হামলার পরে|ধ্বংস করে দিল_হায়! এ কোন সংকেত।"

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে রাশিয়া কর্তৃক আক্রমণ শুরুর এক সপ্তাহ আগেই ভিডিওটি পোস্ট করা হয়। বর্তমানে রুশ-ইউক্রেন যুদ্ধ দুই মাসেরও বেশি সময় ধরে চলছে। এতে ৫ মিলিয়নের বেশি ইউক্রেনবাসী দেশত্যাগ করেছেন।

এরকম আরও ভিডিওকে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের দৃশ্য বলে ফেসবুকে এখানেএখানে পোস্ট করা হয়েছে।

কিন্তু ভিডিওটি অসত্য তথ্য সহকারে পোস্ট করা হয়েছে।

রিভার্স ইমেজ ও কীওয়ার্ড সার্চ করে ভিডিওটিCompared Comparison নামে একটি ভিডিও গেইমের ফুটেজ আপলোড করা ইউটিউব চ্যানেলে পাওয়া গেছে।

নীচে ফেসবুক পোস্টে ছড়ানো বিভ্রান্তিকর ভিডিও (বামে) এবং ইউটিউব চ্যানেল পাওয়া ভিডিও গেইমের (ডানে) ফুটেজের তুলনামূলক স্ক্রিনশট দেয়া হল:

এই ইউটিউব চ্যানেলের স্বত্বাধিকারীও নিশ্চিত করেছেন যে, তার চ্যানেলের ভিডিওগুলো কম্পিউটার-জেনারেটেড ফুটেজ।

''ওই ভিডিও ক্লিপটি আরমা ৩ ব্যবহার করে আমিই বানিয়েছি। দু:খজনকভাবে অনেকে সেটিকে বাস্তবিক যুদ্ধের ফুটেজ হিসেবে আপলোড করেছেন'', বলেন তিনি।

আরমা ৩- এর নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বোহেমিয়া ইন্টারেক্টিভ এএফপি'কে নিশ্চিত করেছে যে, তাদের গেইম সিমুলেশন থেকে কয়েক ঘণ্টার ফুটেজ নিয়ে সেগুলোকে সত্যিকারের ঘটনা বলে ছড়ানো হয়েছে।

বাংলাদেশে ভাইরাল ভিডিওসহ আরেকটি ভিডিওর ব্যাপারে বোহেমিয়ান ইন্টারেক্টিভ এর প্রতিনিধি পাভেল ক্রিজকা বলেছেন, "আমি নিশ্চিত করছি দুটি ভিডিওই আরমা গেইম থেকে নিয়ে ইউক্রেন সংঘাতের ফুটেজ হিসেবে ছড়ানো হয়েছে।''

এ বিষয়ে গত ২৫ ফেব্রুয়ারি একটি টুইট করে সামাজিক মাধ্যমের সাধারণ ব্যবহারকারীদের সতর্ক করেছে কোম্পানিটি। টুইটে বলা হয়েছে তারা এ ধরনের 'ভিডিওর ফ্যাক্ট চেক করতে' সংবাদমাধ্যমের সাথে যোগাযোগ রাখছে।

ইউক্রেন সংঘাত