ভিডিওটি ইউক্রেন যুদ্ধের নয়, ২০১৪ সালে রুশ সেনাবাহিনীর অনুশীলনের

কপিরাইট এএফপি ২০১৭-২০২২। সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত।

ফেসবুকে একটি ভিডিও ক্লিপ শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে যে, এটি গত ফেব্রুয়ারি মাসে ইউক্রেনে রাশিয়ার আক্রমণের সময় রাশিয়ান সৈন্যদের প্যারাস্যুটের মাধ্যমে যুদ্ধবিমান থেকে অবতরণের দৃশ্য। কিন্তু দাবিটি অসত্য; ভিডিও ক্লিপটি ২০১৪ সাল থেকে রাশিয়ায় সামরিক অনুশীলনের বলে অনলাইনে পাওয়া যায়।

ভিডিওটি গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ফেসবুকে এখানে পোস্ট করা হয়।

( Mohammad MAZED)

পোস্টটির বাংলা ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, “রুশ-ইউক্রেন সীমান্তে আকাশে প্যারাট্রুপার...আকাশে উড়ছে প্যারাস্যুট।”

একই দাবি সহকারে ভিডিওটি ফেসবুকে এখানে এখানে শেয়ার করা হয়।

ক্লিপটি মালয়েশিয়ান, বুলগেরিয়ান, জার্মান, চীনা, বার্মিজ, হিন্দি আরবী ভাষায়ও সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার হয়েূছে।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি রাশিয়া ইউক্রেনে সামরিক অভিযান শুরুর পর এ পর্যন্ত শিশুসহ হাজার হাজার মানুষ নিহত হওয়ার পাশাপাশি কয়েক লাখ মানুষ দেশ ছেড়ে পালিয়েছে

তবে এই ভিডিও ক্লিপটি অসত্য দাবি সহকারে ছড়িয়েছে।

রিভার্স ইমেজ সার্চে দেখা যায় ভিডিওটির অংশবিশেষ রাশিয়ান সামাজিক মাধ্যম 'ভিকে'তে একটি অ্যাকাউন্ট থেকে ২০১৪ সালের ১৪ মার্চ পোস্ট করা হয়।

একই অ্যাকাউন্টধারী সেবছরের মার্চের ১৩ তারিখ সামরিক পোশাক পরা কিছু ব্যক্তির দুটি ছবি পোস্ট করে লিখেন, “রোস্তভের নিকটে তাগাংরগে অবতরণ।.....প্রতিদিন দু'বার করে অবতরণ।”

তাগাংরগ রাশিয়ার দক্ষিণ পশ্চিমের রোস্তভের নিকটবর্তী একটি শহর। এটি ইউক্রেন সীমান্ত থেকে ৩১ মাইল (৫০ কিলোমিটার) পূর্বে অবস্থিত।

২০১৪ সালের ১৩ মার্চ রাশিয়ান প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় ঘোষণা করে যে কুজমিংকা রেঞ্জে সামরিক অনুশীলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। কুজমিংকা তাগাংরগের ২২ মাইল (৩৬ কিলোমিটার) উত্তরপূর্বে অবস্থিত।

নীচে বিভ্রান্তিকর ফেসবুক পোস্টের ছবি (বামে) ও ২০১৪ সালে ভিকে'তে পোস্ট করা ছবির (ডানে) একটি তুলনামূলক স্ক্রিনশট দেওয়া হলো:

সামরিক অনুশীলনটি নিয়ে রাশিয়ান সংবাদ সংস্থা তাসের প্রতিবেদন দেখুন এখানে

ইউক্রেন সংঘাত ইস্যুতে এএফপি নিয়মিত ভুয়া তথ্য খণ্ডন করছে। দেখুন এখানে

ইউক্রেন সংঘাত