পুরনো ভিডিওকে 'কাতার বিশ্বকাপে ৪ ব্যক্তির মুসলমান হওয়ার দৃশ্য' বলে প্রচার

কপিরাইট এএফপি ২০১৭-২০২২। সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত।

সামাজিক মাধ্যমে একটি ভিডিও পোস্ট করে অসত্যভাবে দাবি করা হচ্ছে যে, ভিডিওটিতে চলমান কাতার বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে 'চারজন ব্যক্তির ইসলাম গ্রহণের' দৃশ্য দেখা যাচ্ছে। কিন্তু বেশ কয়েক হাজার বার ভিউ হওয়া ভিডিওটি ২০১৬ সাল থেকে অনলাইনে আছে ওই বছর কাতারের রাজধানী দোহায় একটি অনুষ্ঠানে কয়েক ব্যক্তির ইসলাম গ্রহণের খবরের সাথে। তখনকার বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে ধর্মান্তরকারী ব্যক্তিটিকে ডা. জাকির নায়েক হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে, যিনি বিতর্কিত একজন ইসলাম প্রচারক।

৩০ সেকেন্ডের ভিডিওটি কাতারের দোহায় ফিফা বিশ্বকাপ শুরুর দিন গত ২০ নভেম্বর ফেসবুকে এখানে পোস্ট করা হয়েছে।

এই পোস্টে ভিডিওটি ৩৭০০ বারের বেশি এবং অন্যান্য আরও পোস্টে বহু হাজার বার দেখা হয়েছে।

ফুটেজে দেখা যাচ্ছে, একটি স্টেজে চারজন ব্যক্তির পাশে মধ্যপ্রাচের ঐতিহ্যবাহী পোশাক দিশদাশা আলখেল্লা পরা আরেক ব্যক্তি (বাম থেকে দ্বিতীয়) দাঁড়িয়ে আছেন। তাদের পাশে (একমদ বামে) কালো স্যুট ও মাথায় টুপি পরা আরেকজন ব্যক্তি মাইক স্ট্যান্ডের সামনে দাঁড়ানো অবস্থায় রয়েছেন।

কালো স্যুট পরা ব্যক্তিকে ভিডিওতে শাহাদা --যা ইসলাম ধর্ম গ্রহণের ঘোষণা বাক্য-- পাঠ করতে এবং তার সাথে বাকি চারজনকে শাহাদা পুনরাবৃত্তি করতে শোনা যায়।

ফেসবুক পোস্টে ভিডিওটির ক্যাপশন লেখা হয়েছে: "আলহামদুলিল্লাহ। কাতার বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ডঃ জাকির নায়েকের বক্তৃতা শেষে ৪ জন অমুসলিম ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছে।"

জাকির নায়েক একজন ভারতীয় চিকিৎসক যিনি পরে ধর্মীয় উগ্রপন্থী টিভি বক্তা হিসেবে পরিচিত লাভ করেন এবং সাম্প্রতিক সময়ে অপর জাতি সম্পর্কে অবিবেচক মন্তব্য করে বিতর্কিত হন।

ভিডিওটি একইরকম দাবি সহকারে বাংলা ভাষায় এখানেএখানে পোস্ট করা হয়েছে।

যদিও দাবিটি অসত্য।

গুগলে কীওয়ার্ড এবং রিভার্স ইমেজ সার্চ করে ৩০ সেকেন্ডের একই ফুটেজ ২০১৬ সালের ২৭ মে তারিখে কাতারি সংবাদমাধ্যম আল-শারক এর সাবেক সম্পাদক জাবের আল হারমির এই টুইটে পাওয়া গেছে।

সেখানে ক্যাপশনে লেখা হয়েছে: "কাতারের কাতারা এলাকয় ডা. জাকির নায়েকের বক্তব্য শুনে চার ব্যক্তি ইসলাম গ্রহণের ঘোষণা দিয়েছেন।"

নীচে বিভ্রান্তিকর ফেসবুক পোস্টের ভিডিও (বামে) এবং জাবের আল-হারমির পোস্ট করা ভিডিওর (ডানে) তুলনামূলক একটি স্ক্রিনশট দেয়া হল:

''ঈশ্বর কি আছেন?" শীর্ষক সেই বক্তৃতা অনুষ্ঠানের বিষয়ে ২০১৬ সালের মে মাসে দোহা ভিত্তিক সংস্থা 'কাতারা কালচারাল ভিলেজ' তাদের ওয়েবসাইট Katara.net-এ প্রচারণা চালিয়েছিল। সংস্থাটি কাতারের রাজ পরিবারের মদদপুষ্ট

এছাড়া ওয়েবসাইটটির অফিসিয়াল টুইটার হ্যান্ডেল থেকেও ২৬ মে ২০১৬ তে অনুষ্ঠিত বক্তৃতা অনুষ্ঠানের প্রস্তুতির ছবি টুইট করা হয়েছে এখানেএখানে

এছাড়া জাকির নায়েকের অফিসিয়াল ফেসবুক পেইজ থেকেও অনুষ্ঠানটির পোস্টার প্রকাশ করা হয়েছিল এখানে

২৭ মে ২০১৬ তারিখে আল জাজিরা এরাবিক এর ওয়েবসাইটে অনুষ্ঠানটি সম্পর্কিত একটি প্রতিবেদন ভিডিও সহকারে প্রকাশ করা হয় যার শিরোনাম: "দেখুন: দোহায় জাকির নায়েকের বক্তব্য শুনে চার ব্যক্তি ইসলাম গ্রহণ করেছেন"।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে: "চার ব্যক্তি আজ বৃহস্পতিবার দোহার কাতারায় ভারতীয় ইসলাম প্রচারক জাকির নায়েকের ''ঈশ্বর কি আছেন?" শীর্ষক একটি বক্তৃতার পর ইসলাম গ্রহণের ঘোষণা দিলেন।"

বিশ্বকাপ ২০২২