জনাকীর্ণ ট্রেনের পুরনো ছবি ও ভিডিওকে বাংলাদেশে বিরোধীদলের সমাবেশের বলে প্রচার 

কপিরাইট এএফপি ২০১৭-২০২২। সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত।

ফেসবুকে দুটি ছবি ও একটি ভিডিও শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে এগুলো গত ২২ অক্টোবর বাংলাদেশের দক্ষিণের নগরী খুলনায় বিরোধীদল বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) এর একটি সমাবেশে নেতাকর্মীদের যোগদানের দৃশ্য। দাবিটি অসত্য; ছবি দুটি মূলত ২০২০ ও ২০১১ সালে তোলা এবং ভিডিওটি ২০২২ সালের মে মাসের।

ছবি দুটি ও ভিডিওটি গত ২ অক্টোবর ফেসবুকে এখানে শেয়ার করা হয়।

পোস্টটির বাংলা ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, “শত বাধা ও হামলা উপেক্ষা করে খুলনা বিভাগীয় গণসমাবেশে বিএনপি'র নেতা-কর্মীরা ট্রেনযোগে যোগদান!!”

( Mohammad MAZED)

গত ২২ অক্টোবর

বাংলাদেশে সাম্প্রতিক সময়ে দলীয় নেতাকর্মীদের ধরপাকড় ও পাঁচ নেতাকর্মী হত্যার প্রতিবাদে দেশটির বিরোধীদল বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল- বিএনপি গত ২২ অক্টোবর দক্ষিণাঞ্চলের শহর খুলনায় মহাসমাবেশ আহ্বান করে। এ উপলক্ষে পরিবহন ধর্মঘটের মাধ্যমে খুলনাকে সারা দেশ থেকে কার্যত বিচ্ছিন্ন করে ফেলা হলেও হাজার হাজার লোক সমাবেশটিতে যোগ দেন।

এই ছবি দুটি ও ভিডিও একইরকম দাবি সহকারে ফেসবুকে এখানে এখানে শেয়ার করা হয়।

তবে দাবিটি অসত্য। ছবিগুলো ও ভিডিওটি এর আগে ধারণক্ষমতার বেশি যাত্রী নিয়ে চলা ট্রেনের খবরের সাথে অনলাইনে এসেছে।

স্মিথসোনিয়ান ম্যাগাজিনের ছবি

গুগল রিভার্স ইমেজ সার্চে দেখা যায় প্রথম ছবিটি স্মিথসোনিয়ান ম্যাগাজিনের বার্ষিক ছবি প্রতিযোগিতার ওয়েবসাইটে প্রকাশিত হয়।

ছবিটির বর্ণনায় লেখা রয়েছে, “লোকাল ট্রেনে ব্যাপক ভীড়।”

ওয়েবসাইটটির বর্ণনা অনুযায়ী, ছবিটি ঢাকা ভিত্তিক ফটোগ্রাফার রায়হান আহমদের তোলা।

রায়হান এএফপিকে বলেন, “২০২০ সালের ১২ জানুয়ারিতে ঢাকার টঙ্গীতে বিশ্ব ইজতেমা চলাকালীন আমি ছবিটি তুলি।”

বিশ্ব ইজতেমা মুসলমানদের দ্বিতীয় বৃহত্তম সমাবেশ যা প্রতিবছর বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার প্রায় ৩০ কিলোমিটার উত্তরে অনুষ্ঠিত হয়।

নীচে বিভ্রান্তিকর পোস্টের ছবি (বামে) ও স্মিথসোনিয়ান ম্যাগাজিনের ছবির (ডানে) একটি তুলনামূলক স্ক্রিনশট দেওয়া হলো:

এসোসিয়েটেড প্রেসের ছবি

গুগল রিভার্স ইমেজ সার্চে দেখা যায়, দ্বিতীয় ছবিটি ২০১১ সালের ২৩ জানুয়ারি এসোসিয়েটেড প্রেসের (এপি) ফটোগ্রাফার পাভেল রহমানের তোলা। এই ছবিটিও বিশ্ব ইজতেমার সময় তোলা।

ছবিটির ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, “২০১১ সালের ২৩ জানুয়ারি ঢাকার পাশে টঙ্গীতে তুরাগ নদীর পাশে তিন দিন ব্যাপী ইসলামী সমাবেশ শেষে বাড়ি ফেরার সময় ধারণক্ষমতার বাইরে ট্রেনে মুসলমানদের যাত্রা।”

নীচে বিভ্রান্তিকর পোস্টের ছবি (বামে) ও এসোসিয়েটেড প্রেসের ছবির (ডানে) একটি তুলনামূলক স্ক্রিনশট দেওয়া হলো:

ট্রেইনসস্পটিং ভিডিও

ভিডিওটি ২০২২ সালের ১ মে ইউটিউবে প্রকাশিত এই ভিডিওর ৩১ সেকেন্ড থেকে দেখতে পাওয়া অংশের সাথে মিলে যায়। ভিডিওটি বিডি ট্রেইন এক্সপ্রেস নামক একটি ইউটিউব চ্যানেল থেকে পোস্ট করা হয় এবং এই চ্যানেল বাংলাদেশে চলাচলকারী বিভিন্ন ট্রেনের নিয়মিত ইউটিউবে পোস্ট করে থাকে।

ভিডিওটির বাংলা ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, “করোনার জন্য ঠিক ২ বছর এভাবের ট্রেনে জনগণ চলাচল নিষেধ থাকায় এরকমটা দেখা যায় নাই। মানুষের এভাবে নাড়ীর টানে বাড়ি ফেরা দেখেই বুঝা যায় ঈদ চলে এসেছে।”

বাংলাদেশে ২০২২ সালে ৩ মে ঈদুল ফিতর উদযাপিত হয়।

নীচে বিভ্রান্তিকর পোস্টের ভিডিও (বামে) ও বিডি ট্রেইন এক্সপ্রেসের ভিডিওর (ডানে) একটি তুলনামূলক স্ক্রিনশট দেওয়া হলো:

ইউটিউব ভিডিওটির ক্যাপশনে ভিডিওর করার স্থান বলাশপুর ওভারপাস, ময়মনসিংহ লেখা রয়েছে।

ভিডিওতে দেখানো স্থানের সাথে গুগল স্ট্রিট ভিউয়ে পাওয়া ময়মনসিংহের একটি রেল ক্রসিংয়ের এই দৃশ্যের মিল পাওয়া যায়।

নীচে বিডি ট্রেইন এক্সপ্রেসের ভিডিও (বামে) ও গুগল স্ট্রিট ভিউয়ে পাওয়া দৃশ্যের (ডানে) একটি তুলনামূলক স্ক্রিনশট দেওয়া হলো: