ঋষি সুনাকের এই ছবিটি ২০২০ সালে দিওয়ালির সময় তোলা, তিনি ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পরের নয়

কপিরাইট এএফপি ২০১৭-২০২২। সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত।

ঋষি সুনাকের পুরনো চারটি ছবি অনলাইনে নতুন করে ছড়িয়ে দাবি করা হচ্ছে এগুলো সুনাক যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী নিযুক্ত হওয়ার পর তার নতুন অফিসে প্রবেশের আগে হিন্দু ধর্মীয় রীতিনীতি পালনের ছবি। দাবিটি অসত্য; ছবিগুলো মূলত ২০২০ সালের দিওয়ালি উৎসবের সময় চ্যান্সেলরের দায়িত্বে থাকা সুনাক তার লন্ডনের সরকারি বাসভবনের প্রবেশপথে প্রদীপ প্রজ্বলনের দৃশ্য।

গত ২৯ অক্টোবর ফেসবুকে এখানে ছবিগুলো শেয়ার করা হয়।

পোস্টটির ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, “যুক্তরাজ্যর নতুন প্রধানমন্ত্রী Rishi Sunak তার অফিসে প্রবেশের আগে ধর্মীয় রীতিনীতি পালন করছেন। ধরুন, কোনো মুসলিম যদি এ রকম ধর্মীয় রীতিনীতি পালন করতো! কেমন আচরণ করতো বিশ্ব তার সাথে?”

( Mohammad MAZED)

ব্রিটেনের অর্থনৈতিক সংকটের জেরে ২০২২ সালে তৃতীয়বারের মতো দেশটির প্রধানমন্ত্রী পরিবর্তন হয় এবং নতুন প্রধানমন্ত্রী হন হিন্দু ধর্মাবলম্বী সুনাক।

গত ২৫ অক্টোবর সুনাক প্রায় ২০০ বছর ভারতীয় উপমহাদেশ শাসন করা উপনিবেশিক দেশ ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার খবরে ভারতীয়দের মধ্যে আনন্দের বন্যা বয়ে যায়।

ছবিগুলো একইরকম দাবি সহকারে ফেসবুকে এখানে এখানে শেয়ার করা হয়।

তবে দাবিটি অসত্য।

পুরনো ছবি

গুগল রিভার্স ইমেজ সার্চে দেখা যায় চারটি ছবিই মার্কিন সংবাদ সংস্থা গেটি ইমেজ এ পূর্বে প্রকাশিত একটি ভিডিওর চারটি ফ্রেম থেকে নেওয়া হয়েছে।

২০২০ সালের ১২ নভেম্বর ভিডিওটি প্রকাশিত হয়।

এক মিনিট ২৫ সেকেন্ড দীর্ঘ ভিডিওটির ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, “দিওয়ালির জন্য প্রদীপ প্রজ্বলন করছেন ঋষি সুনাক। অর্থমন্ত্রী ঋষি সুনাক ১১ ডাউনিং স্ট্রিটের দরজার বাইরে প্রদীপ জ্বালিয়ে আবার ১১ ডাউনিং স্ট্রিটে প্রবেশ করছেন।”

ফুটেজটি যুক্তরাজ্য ভিত্তিক টেলিভিশন কোম্পানি আইটিএন এর সৌজন্যে প্রকাশিত হয়।

নীচে চারটি বিভ্রান্তিকর ছবি (বামে) ও গেটি ইমেজে এ প্রকাশিত ভিডিওটির ফ্রেমের তুলনামূলক স্ক্রিনশট দেওয়া হলো:

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ান ও ভারতের সংবাদমাধ্যম এনডিটিভিতেও ২০২০ সালের নভেম্বরে ঘটনাটির খবর ছবিসহ প্রকাশিত হয়।