এটি ২০১৯ সালের বিশ্বকাপে পাকিস্তান ও আফগানিস্তান সমর্থকদের সংঘর্ষের ভিডিও

কপিরাইট এএফপি ২০১৭-২০২২। সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত।

সামাজিক মাধ্যমে একটি ভিডিও শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে এটি ২০২২ সালের সেপ্টেম্বর মাসে এশিয়া কাপ ক্রিকেটের পাকিস্তান বনাম আফগানিস্তান ম্যাচের সময় দুই দলের ভক্তদের মধ্যকার সংঘর্ষের ঘটনার দৃশ্য। তবে দাবিটি বিভ্রান্তিকর। যদিও চলতি সেপ্টেম্বরের ৭ তারিখে অনুষ্ঠিত এশিয়া কাপের ম্যাচটির সময় ভক্তদের মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটেছে, কিন্তু এই ভিডিওটি ৩ বছরের বেশি পুরনো। ২০১৯ সালের জুন মাসে ইংল্যান্ডের অনুষ্ঠিত আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপে পাকিস্তান-আফগানিস্তানের মধ্যকার ম্যাচের সময় সংঘর্ষের পর ভিডিওটি সংবাদ প্রতিবেদনে প্রচারিত হয়েছিল।

গত ৮ সেপ্টেম্বর ফেসবুকে এখানে ভিডিওটি পোস্ট করে বাংলা ও ইংরেজিতে ক্যাপশন দেয়া হয়েছে: "পাকিস্তান বনাম আফগানিস্তান খেলা দর্শক মারামারি ২০২২।"

ভাইরাল হওয়া ফুটেজটিতে দেখা যাচ্ছে দুইপক্ষ একে অপরকে কিলঘুষি দিচ্ছেন এবং বিভিন্ন জিনিস ছুঁড়ে মারছেন।

একই রকম দাবি সহকারে পোস্ট করা ভিডিওটি এখানে এখানে বেশ কয়েক হাজারবার দেখা হয়েছে।

গত ৭ সেপ্টেম্বর সংযুক্ত আরব আমিরাতের শারজাহতে অনুষ্ঠিত এশিয়া কাপের পাকিস্তান বনাম আফগানিস্তান ম্যাচে ভক্তদের মধ্যকার সংঘর্ষের ঘটনা-- যেটিকে পাকিস্তান ক্রিকেটের প্রধান রমিজ রাজা 'মাস্তানি' বলে অভিহিত করেছেন-- এর পর ভিডিওটি ফেসবুকে ছড়িয়েছে।

মাঠে দুই দলের খেলোয়াড়দের মধ্যকার বাকবিতণ্ডার উত্তাপ গ্যালারিতে থাকা দর্শকদের মধ্যে ছড়ায়। কিছু ভিডিওতে দেখা যায় পাকিস্তান দলের টিশার্ট পরা কিছু দর্শকের ওপর চেয়ার ছুঁড়ে মারছেন আফগান কয়েকজন দর্শক।

তবে সামাজিক মাধ্যমে ছড়ানো ভিডিওটি পুরনো।

গুগলে কীওয়ার্ড এবং রিভার্স ইমেজ সার্চ করে ফুটেজটি এখানে ২০১৯ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপে পাকিস্তান-আফগানিস্তান ম্যাচ ভক্তদের মারামারি সংক্রান্ত এই প্রতিবেদনে পাওয়া গেছে।

ব্রিটিশ ট্যাবলয়েড দ্য সান ২০১৯ সালের ৩০ জুনের ওই প্রতিবেদনের শিরোনাম: "ক্রিকেট বিশ্বকাপে পাক-আফগান ভক্তদের মারামারির নতুন ভয়াবহ ফুটেজ প্রকাশিত"।

বিভ্রান্তিকর ফেসবুক পোস্টের ভিডিও (বামে) এবং দ্য সান এর ভিডিওর (ডানে) তুলনামূলক স্ক্রিনশট নিচে দেয়া হল:

প্রতিবেদনে জানানো হয়, খেলাটি লিডস এর হেডিংলি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে ২০১৯ সালের ২৯ জুন অনুষ্ঠিত হয়।

ওই ফুটেজ এবং সেটির স্ক্রিনশট তখন বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে-- যেমন এখানে এখানে-- প্রকাশিত হয়েছিল।

এছাড়া একই ঘটনার ভিন্ন এঙ্গেলের একটি ভিডিও পাকিস্তানি সাংবাদিক মুরতাজা আলী শাহ এখানে টুইট করেছিলেন।


ম্যাচ চলাকালীন গ্যালারিতে ''বেলুচিস্তানের জন্য সুবিচার'' লেখা একটি ব্যানার উড়ানোকে কেন্দ্র করে শুরু হওয়া ওই সহিংসতা পরে স্টেডিয়ামের বাইরেও ছড়িয়ে পড়ে। তখন এএফপি নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছিল।

বেলুচিস্তান হচ্ছে আফগানিস্তান সীমান্তবর্তী পাকিস্তানের একটি প্রদেশ যেটি ইসলামপন্থী, বিচ্ছিন্নতাবাদী এবং আন্তধর্মীয় বিভিন্ন বিভিন্ন গ্রুপের মধ্যকার সংঘাতের জন্য বেশ পরিচিত।

দক্ষিণ এশিয়াস্থ প্রতিবেশী দেশ দুটির মধ্যে পারস্পরিক অবিশ্বাস ও দোষরোপের সম্পর্ক দরুণ বহু বছর ধরে বিদ্যমান।