এটি বাংলাদেশের নড়াইলে হিন্দুদের উপর হামলার ছবি নয়

কপিরাইট এএফপি ২০১৭-২০২২। সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত।

চলতি জুলাই মাসে মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ বাংলাদেশের নড়াইলে হিন্দু ধর্মাবম্বীদের উপর হামলার প্রেক্ষিতে ফেসবুকে একটি ছবি শেয়ার করে সেটিকে এই হামলার ঘটনার ছবি বলে দাবি করা হচ্ছে। দাবিটি অসত্য; ছবিটি ২০২১ সালের মার্চ মাসে বাংলাদেশে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আগমনকে কেন্দ্র করে সংঘটিত বিক্ষোভের খবরের সাথে সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হয়। এএফপি ছবিটি ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তোলা বলে নিশ্চিত হয়েছে।

জুলাই মাসের মাঝামাঝি সময়ে হিন্দুদের উপর এই হামলার পরে গত ১৬ জুলাই ফেসবুকে এখানে ছবিটি শেয়ার করা হয়। 

ছবিটিতে টুপি ও পাঞ্জাবী পরিহিত কিছু ব্যক্তিকে দেখা যায় হাতে লাঠি নিয়ে কিছুতে অগ্নিসংযোগ করছেন। ছবিটিতে তাদেরকে লাল গোল চিহ্নিত করা হয়েছে।

পোস্টটির ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, “পরবর্তী শুক্রবারগুলো এভাবেই গণ্য হবে, "আজ আরেকটি শুক্রবার। আশীর্বাদ করবেন যেন শান্তিঝড় থেকে বাঁচতে পারি।”

“ছবিতে: ফ্যান্টাস্টিক নড়াইল,বাংলাদেশ।”

( Mohammad MAZED)

 

ছবিটিতে আরেকটি ফেসবুক পোস্টের স্ক্রিনশট যুক্ত আছে যার ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, "নড়াইল জেলার লোহাগড়া উপজেলার দিঘলিয়া গ্রামে হিন্দুদের বাড়িঘরে শান্তির বাতাস বইতেসে।"

২০২২ সালের জুলাই মাসের মাঝামাঝি সময়ে নড়াইলে হিন্দুদের উপর এই হামলার পরে ছবিটি অনলাইনে ছড়ায়।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যম ডেইলি স্টারের প্রতিবেদন অনুযায়ী গত ১৫ জুলাই নবী মুহাম্মদকে নিয়ে অবমাননাকর ফেসবুক পোস্ট দেয়ার অভিযোগে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের উপর এই হামলা হয়। হিন্দুদের দোকান, মন্দির ও ঘরবাড়িতে হামলা হয় বলে প্রতিবেদনটিতে উল্লেখ রয়েছে।

একই দাবি সহকারে ফেসবুকে এখানে এখানে ছবিটি শেয়ার করা হয়।

দাবিটি অসত্য। ছবিটি মূলত ২০২১ সালের মার্চ মাসে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বাংলাদেশে আগমনকে কেন্দ্র করে সংঘটিত বিক্ষোভের সময়ের।

ভারতবিরোধী প্রতিবাদ

বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তিতে মোদীর প্রতি ভারতে মুসলমানদের বিরুদ্ধে সাম্প্রদায়িক সহিংসতায় প্ররোচণার অভিযোগ এনে ইসলামপন্থী সংগঠন হেফাজতে ইসলাম এই প্রতিবাদ জানায়। এএফপির প্রতিবেদন দেখুন এখানে

গুগলে রিভার্স ইমেজ সার্চে দেখা যায় মূল ছবিটি ২০২১ সালের ২৬ মার্চ স্থানীয় সংবাদমাধ্যম বাংলাদেশ জার্নালের একটি প্রতিবেদনে প্রকাশিত হয়।

প্রতিবেদনটির শিরোনাম ছিল, “ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মাদ্রাসাছাত্রদের তাণ্ডব।”

নীচে বিভ্রান্তিকর ফেসবুক পোস্টের ছবি (বামে) ও ২০২১ সালে প্রকাশিত ছবির (ডানে) একটি তুলনামূলক স্ক্রিনশট দেওয়া হলো:

প্রতিবেদনটিতে লেখা রয়েছে, “হেফাজত নিয়ন্ত্রিত চট্টগ্রামের হাটহাজারী মাদ্রাসায় ছাত্রদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের ঘটনার রেশ ধরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তাণ্ডব চালিয়েছেন মাদ্রাসাছাত্ররা।”

বিভ্রান্তিকর ছবিতে ‘বঙ্গবন্ধু স্কয়ার’ নামে একটি গেট দেখা যায় যা বাংলাদেশের ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় অবস্থিত।

নীচে ২০২১ সালে প্রকাশিত ছবি (বামে) এবং গুগল ম্যাপসে পাওয়া বঙ্গবন্ধু স্কয়ারের একটি ছবির (ডানে) একটি তুলনামূলক স্ক্রিনশট দেওয়া হলো:

নড়াইলের ঘটনায় স্থানীয় লোহাগড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শেখ আবু হেনা মিলন এএফপিকে বলেন, তারা এখনো ঘটনাটি তদন্ত করছেন। 

তিনি বলেন, “এ ঘটনায় আমরা ইতোমধ্যে আটজনকে গ্রেফতারে করেছি।”