( AFP / RANDY BROOKS)

নবী মুহাম্মদকে নিয়ে মন্তব্যের জেরে ক্রিকেটার মইন আলী কর্তৃক ভারতকে বয়কটের ঘোষণার তথ্যটি ভুয়া

কপিরাইট এএফপি ২০১৭-২০২২। সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত।

সামাজিক মাধ্যমে ইংলিশ ক্রিকেটার মইন আলীর টুইট সদৃশ একটি স্ক্রিনশট শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে, ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপি'র সদ্য সাবেক এক মুখপাত্র কর্তৃক নবী মুহাম্মদকে নিয়ে মন্তব্যের জেরে দেশটি আনুষ্ঠানিভাবে ক্ষমা না চাইলে মইন ভারতে আর খেলতে আসবেন না বলে জানিয়েছেন। দাবিটি অসত্য; স্ক্রিনশটের টুইটার অ্যাকাউন্টটি টুইটার কর্তৃক সাসপেন্ড করা হয়েছে এবং ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড এএফপিকে জানিয়েছে যে অ্যাকাউন্টটি ভুয়া ছিল।  

গত ৮ জুন ফেসবুকে এখানে স্ক্রিনশটটি শেয়ার করা হয়।

পোস্টটির ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, “ভারত মাফ না চাইলে আর কখনো ভারতে খেলতে আসবেন না ক্রিকেটার মইন আলী। স্যালুট।”

মইন আলীর নামে একটি টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে করা টুইটের স্ক্রিনশটে লেখা রয়েছে, “যদি ভারত তার নিন্দামূলক বক্তব্যের জন্য ক্ষমা না চায়, আমি আর কখনও ভারতে ম্যাচ খেলতে যাব না, আমি আইপিএলও বয়কট করব।”

“আমি আমার সহকর্মী মুসলিম ভাইদের কাছে একই কাজ করার জন্য আবেদন করব, আমি ভালোবাসি মোহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে।”

মইন আলী ইংল্যান্ডের একজন পেশাদার ক্রিকেটার। তিনি ভারতের ঘরোয়া ক্রিকেট টুর্নামেন্ট আইপিএলে চেন্নাই সুপার কিংসের হয়েও খেলে থাকেন।

সম্প্রতি ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপি'র সদ্য সাবেক মুখপাত্র নুপুর শর্মা কর্তৃক একটি টেলিভিশন আলোচনায় নবী মুহাম্মদ এর সাথে তার সর্বশেষ স্ত্রীকে নিয়ে একটি মন্তব্যের জের ধরে বিশ্বব্যাপী মুসলমানরা বিক্ষোভ প্রদর্শন করার প্রেক্ষিতে পোস্টটি অনলাইনে ছড়ায়।

মন্তব্যটির পর বিজেপি নুপুর শর্মাকে তার দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি প্রদান করে।

বিভ্রান্তিকর পোস্টের স্ক্রিনশটটি একইসাথে শ্রীলংকা, ভারতপাকিস্তানেও শেয়ার করা হয়।

তবে দাবিটি অসত্য।

যে টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে টুইটটি পোস্ট করা হয় তা ইতোমধ্যে টুইটার কর্তৃক সাসপেন্ড করা হয়েছে।

তাছাড়া সাসপেন্ড হওয়া অ্যাকাউন্টটির বায়োতে লেখা ছিল যে অ্যাকাউন্টটি অফিসিয়াল নয়।

ইংল্যান্ড ও ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডের মিডিয়া কর্মকর্তা জোনাথন রিড এএফপিকে জানিয়েছেন, অ্যাকাউন্টটি মইন আলীর নয়।

তিনি বলেন, “এটি একটি ভুয়া অ্যাকাউন্ট। সামাজিক মাধ্যমে মইন আলীর কোন অ্যাকাউন্ট নেই।”

ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের ওয়েবসাইটে মইন আলীর টুইটার, ফেসবুক ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টের লিঙ্ক দেয়া থাকলেও তিনটি অ্যাকাউন্টউ নিষ্ক্রিয়।