ইউক্রেনের এক সেনার ছবিকে দেশটির 'ফার্স্ট লেডির ছবি' হিসেবে বিভ্রান্তিকরভাবে প্রচার

কপিরাইট এএফপি ২০১৭-২০২২। সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত।

ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলার প্রেক্ষাপটে সামরিক ইউনিফর্ম পরা এক নারীর ছবি সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে দাবি করা হচ্ছে ছবিটি ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলদিমির জেলেনস্কির 'স্ত্রী তথা দেশটির ফার্স্ট লেডি'র। দাবিটি অসত্য; ছবিটিতে মূলত ২০২১ সালের আগস্টে এক সামরিক প্রশিক্ষণে অংশ নেয়া এক সেনা সদস্যকে দেখা যাচ্ছে। অদ্য ১১ মার্চ পর্যন্ত সশস্ত্র কোন যুদ্ধে ইউক্রেনের ফার্স্ট লেডি অলেনা জেলেনস্কার অংশ নেওয়ার কোন খবর পাওয়া যায়নি। 

ছবিটি গত ২৬ ফেব্রুয়ারি ফেসবুকে এখানে শেয়া করা হয়। 

( Mohammad MAZED)

পোস্টটির বাংলা ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, "ইউক্রেনের রাষ্ট্রপতির প্রাসাদ ছেড়ে গেরিলা যুদ্ধে নেমে পড়েছে ভলোদোমির জেলেনিস্কি ও ফার্স্ট লেডি ওলেনা জেলেনেস্কি! স্যালুট উনাদের কে।"

ইউরোপের দেশ ইউক্রেনে প্রতিবেশি রাশিয়ার আক্রমণ ভয়াবহ সংঘাত ও মানবিক বিপর্যয়ের জন্ম দিয়েছে যার ফলে এক মাসেরও কম সময়ের মধ্যে প্রায় এক কোটি লোক দেশটি ছেড়ে পালিয়েছে বলে জাতিসংঘ জানিয়েছে। 

এএফপি'র প্রতিবেদন অনুযায়ী গত ৮ মার্চ আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমকে লেখা এক খোলা চিঠিতে অলেনা জেলেনস্কা রাশিয়ার আক্রমণকে 'ইউক্রেনিয় জনগনকে গণহত্যা' বলে অভিহিত করেন এবং ইউক্রেনের উপর দিয়ে নো-ফ্লাই জোন ঘোষণা করার আহবান জানান। 

অদ্য ২৪ মার্চ পর্যন্ত সশস্ত্র যুদ্ধে ইউক্রেনের ফার্স্ট লেডি অলেনা জেলেনস্কা অথবা প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কির অংশ নেওয়ার কোন খবর পাওয়া যায়নি। 

একইরকম দাবি সহকারে ছবিটি ফেসবুকে এখানে এখানে শেয়ার করা হয়। 

তবে দাবিটি অসত্য।

ইউক্রেনীয় সেনা

গুগল রিভার্স ইমেজ সার্চে দেখা যায় ২০২১ সালের ২২ আগস্ট ছবিটি স্টক ফটো এজেন্সি আলামির ওয়েবসাইটে  প্রকাশিত হয়। 

ছবিটির ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, "কিয়েভ, ইউক্রেন - ২২ আগস্ট, ২০২১: ইউক্রেনের ৩০ তম স্বাধীনতা দিবসে সামরিক কুচকাওয়াজের রিহার্সাল। ক্রেশ্চাতিক সড়কে সামরিক ইউনিফর্ম পরিহিত এক হাস্যোজ্জ্বল নারী সেনা সদস্য।"

ক্রেশ্চাতিক স্ট্রিট ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভের প্রধান রাস্তা। 

নীচে বিভ্রান্তিকর ফেসবুক পোস্টের ছবি (বামে) ও আলামি'তে প্রকাশিত ছবির (ডানে) একটি তুলনামূলক স্ক্রিনশট দেওয়া হলো:

ছবিটি একইরকম ক্যাপশন সহকারে কানাডা ভিত্তিক এজেন্সি আইস্টকফটো'র ওয়েবসাইটেও প্রকাশিত হয়। 

নীচে বিভ্রান্তিকর ফেসবুক পোস্টের ছবি (বামে) ও এএফপি'র তোলা অলেনা জেলেনস্কার একটি ছবির (ডানে) একটি তুলনামূলক স্ক্রিনশট দেওয়া হলো:

ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলার প্রেক্ষিতে বেশকিছু বিভ্রান্তিকর তথ্য অনলাইনে ছড়িয়ে পড়ে। এএফপি'র এসংক্রান্ত ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন দেখুন এখানে।