এটি ইউক্রেনের আকাশে উড়ন্ত রুশ বিমানের দৃশ্য নয়, পুরনো সামরিক মহড়ার ভিডিও

কপিরাইট এএফপি ২০১৭-২০২২। সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত।

ফেসবুকে একটি ভিডিও ছড়িয়েছে যেখানে দেখা যাচ্ছে, কয়েকটি সামরিক বিমান একসঙ্গে একটি আবাসিক এলাকার ওপর দিয়ে উড়ছে। ভিডিওটি বিভিন্ন পোস্টে কয়েক হাজার বার দেখা হয়েছে। এসব পোস্টে দাবি করা হয়েছে, উড়ন্ত বিমানগুলো প্রতিবেশি দেশ রাশিয়া থেকে ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে চলমান সংকটের সময় ইউক্রেনে প্রবেশ করেছে। ইউক্রেনে পুরোদমে সামরিক অভিযান বিমান হামলা শুরুর নির্দেশ দেয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যে ভিডিওটি অনলাইনে ছড়ায়। কিন্তু ভিডিওটি ভুল প্রেক্ষিতে ছড়ানো হয়েছে। একই ভিডিও ২০২০ সালে রাশিয়ার বিজয় দিবসের বিমান মহড়ার খবরের সাথে আগে থেকেই অনলাইনে রয়েছে।

৩১ সেকেন্ডের ভিডিওটি গত ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২২ তারিখে ফেসবুকে এখানে শেয়ার করা হয়েছে।

ভিডিওতে দেখা যায়, ১০টি বিমান একটি আবাসিক এলাকার ওপর দিয়ে উড়ছে এবং ব্যাকগ্রাউন্ডে সাইরেন বাজছে।

বাংলা ভাষায় পোস্টটির ক্যাপশন লেখা হয়েছে: "ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভের উপর দিয়ে উড়ে যাচ্ছে রাশিয়ার বিমান বাহিনী"।

একই রকম দাবি সহকারে ভিডিওটি ফেসবুকে বাংলায় এখানেএখানে এবং ইংরেজিতে এখানেএখানে পোস্ট করা হয়েছে।

এছাড়া স্পেনিশ, হাঙ্গেরিয়ান, মালয়েশিয়ান, চীনাবার্মিজ ভাষাও ভিডিওটি একই রকম দাবি সহকারে ছড়িয়েছে।

২৪ ফেব্রুয়ারি প্রেসিডেন্ট পুতিন প্রতিবেশি ইউক্রেনে রুশ সামরিক অভিযান শুরুর ঘোষণা দেয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যে এসব পোস্ট অনলাইনে ছড়াতে থাকে।

এএফপির প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, হামলা শুরুর পরপরই ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভ সহ আরও বেশ কয়েকটি শহরে বিস্ফোরণের খবর পাওয়া গেছে।

কিন্তু ভাইরাল ভিডিওটি ভুল প্রেক্ষিতে শেয়ার করা হয়েছে।

ইয়ানডেক্সে রিভার্স ইমেজ সার্চে ভিডিওটির একটি বড় ভার্সন ২০২০ সালের ৪ মে তারিখে আপলোড করা এই ভিডিওটি একটি ইউটিউব চ্যানেলে পাওয়া গেছে।

রুশ ভাষায় ভিডিওর শিরোনাম হচ্ছে: "প্যারেড রিহার্সাল ০৫/০৪/২০২০। বিমান অংশ। তুশিনোর ওপর দিয়ে যুদ্ধবিমানের ফ্লাইট।"

ভিডিওর মূল ভার্সনে কোনো সাইরেনের আওয়াজ নেই।

রাশিয়ান শহর তুশিনো রাজধানী মস্কোর উত্তর দিকে অবস্থিত।

নীচে বিভ্রান্তিকর ফেসবুক পোস্টের ভিডিও এবং ইউটিউবের ভিডিওর স্ক্রিনশটের তুলনামূলক চিত্র দেয়া হল:

আরেকটি ইউটিউব চ্যানেলে ভিডিওটি পাওয়া গেছে যেখানে শিরোনাম ছিল: "ফ্লাইবাই মস্কো (মে ৪, ২০২০)"।

বিজয় দিবস উদযাপন

রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন সংবাদ সংস্থা আরআইএ নভোস্তি ২০২০ সালের ৪ মের এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, মস্কোতে দেশটির জাতীয় দিবসের বিমান মহড়ার প্রস্তুতি চলছে।

একই তারিখে ঘটনার একটি ছবি গ্যালারিও প্রকাশ করে সংবাদ সংস্থাটি। তাতে মহড়ারত বিমানগুলোকে যেমন ফরমেশনে দেখা গেছে তা বিভ্রান্তিকর ভিডিওর দৃশ্যের সাথে অবিকল মিলে যায়।

নিচে বিভ্রান্তিকর পোস্টের ভিডিও এবং আরআইএ নভোস্তির প্রকাশিত ছবির তুলনামূলক স্ক্রিনশট দেয়া হলো:

আরআইএ'র প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ৯ মে বিজয় দিবসের মূল সামরিক মহড়া বাতিল করা হলেও বিমান মহড়া চালানো হয়।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সমাপ্তি হিসেবে রাশিয়া প্রতিবছর জাতীয় দিবস পালন করে থাকে যা ২০২০ সালের করোনা ভাইরাস বিধিনিষেধের কারণে অনুষ্ঠিত হয়নি।

তবে এর মধ্যেও সামরিক হেলিকপ্টার, বোমারু বিমান এবং যুদ্ধবিমান দিবসটি উপলক্ষ্যে মহড়া দিয়েছিল, ২০২০ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে এএফপি।

দিবসটির ৭৫তম বছর উপলক্ষ্যে ২০২০ সালের ২৪ জুন আড়ম্বরপূর্ণভাবে সামরিক মহড়া অনুষ্ঠিত হয়।

রাশিয়া ও ইউক্রেনের মধ্যে সামরিক ও কূটনৈতিক উত্তেজনা বৃদ্ধির সাথে সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে অনলাইনে কুতথ্যের প্রবাহ বেড়েছে।