Saudi women enter a movie theatre at a cinema in the Saudi capital Riyadh, on June 22, 2020 as cinemas re-opened following the lifting of a lockdown due to the COVID-19 coronavirus pandemic. ( AFP / FAYEZ NURELDINE) ( AFP / FAYEZ NURELDINE)

সৌদি আরবে পুনরায় সিনেমা হল বন্ধ ঘোষণা করা হয়নি

কপিরাইট এএফপি ২০১৭-২০২২। সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত।

জানুয়ারি মাস থেকে বেশ কিছু ফেসবুক পোস্টে দাবি করা হয়েছে যে, ২০১৭ সালে সৌদি আরব সিনেমা হল উন্মুক্ত করে দেয়ার যে সিদ্ধান্ত নিয়েছিল তা বাতিল করে পুনরায় পুরোপুরিভাবে বন্ধ করার ঘোষণা দিয়েছে। দাবিটি অসত্য; অদ্য ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২২ পর্যন্ত সৌদি বিনোদন কর্তৃপক্ষ সিনেমা হলের উপর এরকম কোন নিষেধাজ্ঞা দেয়নি। দু'টি সিনেমা হল এএফপিকে জানিয়েছে তারা অবাধে পরিচালনা করছে এবং ১৬ ফেব্রুয়ারীতে এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত টিকেট বিক্রি করছে।  

গত ২৪ জানুয়ারি ফেসবুকে এখানে এরকম দাবি সহকারে একটি পোস্ট করা হয়। 

 

( Mohammad MAZED)

পোস্টটির ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, "খুশির খবর!! সৌদি আরবে সিনেমা হল পুরোপুরি ভাবে বন্ধ করার ঘোষণা করেছেন সৌদি সরকার! আবার আগের মত হবে আলহামদুলিল্লাহ!"

রক্ষণশীল মুসলিম দেশ সৌদি আরবে রাজপরিবারের ধারাবাহিক সংস্কার কার্যের ধারাবাহিকতায় ২০১৭ সালের শেষের দিকে সিনেমা হল পরিচালনার উপর থাকা দীর্ঘদিনের নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হয়। এএফপির প্রতিবেদন দেখুন এখানে

ভ্যারাইটি ম্যাগাজিনের প্রতিবেদন অনুযায়ী কেবল ২০২১ সালেই পূর্ববর্তী বছরের তুলনায় ৯৫ শতাংশ বেশি তথা মোট ২৩৮ মিলিয়ন ডলারের টিকেট বিক্রি হয়েছে।

একইরকম দাবিসহকারে ফেসবুকে এখানেএখানে অনুরূপ পোস্ট শেয়ার করা হয়েছে।

তবে দাবিটি অসত্য। অদ্য ১৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সৌদি আরবের বিনোদন কর্তৃপক্ষ সিনেমা হল বন্ধের কোন ঘোষণা দেয়নি।

দেশটির দু'টি সিনেমা হল কর্তৃপক্ষ পৃথকভাবে এএফপিকে জানিয়েছে যে তাদের হল খোলা আছে।

মধ্যপ্রাচ্য ও উত্তর আফ্রিকাতে পরিচালিত সিনেমা হল চেইন ভক্স এর সৌদি শাখা গত ১০ ফেব্রুয়ারি এএফপিকে বলে, "সিনেমা হল স্বাভাবিকভাবেউ চলছে এবং বন্ধ হওয়ার দাবিটি অসত্য।"

সৌদি রাজধানী রিয়াদসহ বিভিন্ন স্থানে দশটি থিয়েটার নিয়ে পরিচালিত এএমসি সিনেমা গত ১০ ফেব্রুয়ারী বলে, "একথা সত্য নয় যে আমাদেরকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। আমাদের ওয়েবসাইটে দেখতে পারবেন যে আমাদের কার্যক্রম অব্যাহত আছে। আমাদের বিভিন্ন ধরণের থিয়েটার ও শো- টাইম আছে।"

এছাড়াও এএফপি ১৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত হল দুটির ওয়েবসাইটে টিকেট বিক্রি চলমান আছে দেখতে পেয়েছে।