ভিন্ন ছবিকে এডিট করে কারাগারে অং সান সু চি'র ছবি বলে প্রচার

কপিরাইট এএফপি ২০১৭-২০২২। সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত।

হাজারো ফেসবুক পোস্টে একটি ছবি ছড়িয়েছে যেটিতে দেখানো হচ্ছে সামরিক সরকারের হাতে আটক মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সু চি বন্দী অবস্থায় কারাগারের একটি কক্ষে অবস্থান করছেন। দাবিটি অসত্য; কারাগারে থাকা ভিন্ন এক নারীর ছবি-- যা ২০১৩ সালে উইকিমিডিয়া কমন্স'র ওয়েবসাইটে আপলোড করা হয়েছিলো-- এডিট করে তাতে সু চি'র মুখ বসানো হয়েছে।

সু চি'র বলে দাবি করা ছবিটি গত ২২ ফেব্রুয়ারি ফেসবুকে এখানে পোস্ট করা হয়। পোস্টটি ১৭ হাজারের বেশি শেয়ার হয়েছে।

পোস্টটির বাংলা ক্যাপশনে লেখা আছে: ''ক্ষমতা কারো স্থায়ী থাকে না''।

ভাইরাল হওয়া ছবিটিতে দেখানো হয়েছে, আটক বার্মা নেত্রী এবং দেশটির সাবেক স্টেট কাউন্সেলর অং সান সু চি কারাগারের একটি সেলের ভেতর বসে বাইরের দিকে তাকিয়ে আছেন।

অং সান সু চি ২০২০ সালে অনুষ্ঠিত দ্বিতীয় সংসদ নির্বাচনে বিজয়ী মায়ানমারের এনএলডি (ন্যাশনাল লীগ ফর ডেমোক্রেসি) এর নেতা, যদিও এবছর ১ ফেব্রুয়ারির অভ্যুত্থানে সামরিক বাহিনী এনএলডিকে সরিয়ে ক্ষমতা নিয়ে নেয়। সু চি এবং তার দলের অন্যান্য নেতাদের তাৎক্ষণিক আটক করা হয়। বর্তমানে সু চি দুর্নীতি ও রাষ্ট্রীয় গোপনীয়তা ভঙ্গসহ কয়েকটি অভিযোগে অভিযুক্ত হয়ে কারাগারে আছেন। এ সংক্রান্ত এএফপি'র রিপোর্ট দেখুন এখানে

ছবিটি ফেসবুকে এখানেএখানে শেয়ার করা হয়।

কিন্তু এই ছবিটি প্রকৃতপক্ষে সু চি'র ছবি নয়, বরং এডিট করে তার চেহারা বসানো হয়েছে।

রিভার্স ইমেজ সার্চে দেখা যায়, মূল ছবিটি উইকিমিডিয়া কমন্স-এ অফিসার বিম্বলবারির (Officer Bimblebury) সৌজন্যে প্রকাশিত হয় এবং ছবিটি ২০১৩ সালের ১২ জুলাই তোলা বলে সেখানে উল্লেখ করা হয়েছে।

ছবিটির ক্যাপশনে লেখা আছে: ''নিজের সেলের ভেতর একজন বন্দী নারী। সেলগুলোতে বন্দীদের একটি বিছানা ও টয়লেট সরবরাহ করা হয়, আর বাইরের সংস্পর্শ থেকে দূরে রাখার জন্য লোহার খাঁচা রয়েছে। সেলগুলো বন্দী এবং সাধারণ মানুষ উভয়ের স্বাচ্ছন্দ্য ও সুবিধার কথা মাথায় রেখে ডিজাইন করা।''

উইকিমিডিয়া কমন্স হলো উইকিমিডিয়া ফাউন্ডেশনের একটি প্রকল্প যা বিনামূল্যে ছবি, অডিও ও অন্যান্য মিডিয়া ব্যবহার করার সুযোগ দেয়।

নীচে বিভ্রান্তিকর ফেসবুক পোস্ট (বামে) ও উইকিমিডিয়া কমন্সের ছবির (ডানে) একটি তুলনামূলক স্ক্রিনশট দেওয়া হলো:

( Qadaruddin SHISHIR)

ডিজিটাল ভেরিফিকেশন টুল InVID-WeVerify-এ মূল ছবিটির মেটাডাটা যাচাইয়ে দেখা গেছে ছবিটি সর্বশেষ পরিবর্তন করা হয়েছে ২০১৩ সালের ১২ জুলাই।

মিয়ানমার সামরিক অভ্যুত্থান