ভারতের একটি দরগাহ'র ছবিকে নবী ইব্রাহীমের কবর বলে বিভ্রান্তিকরভাবে প্রচার

কপিরাইট এএফপি ২০১৭-২০২২। সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত।

মুসলমান সংখ্যাগরিষ্ঠ বাংলাদেশে ফেসবুকে একটি ছবি শত শত বার শেয়ার করে সেটিকে নবী ইব্রাহীমের কবরের ছবি বলে দাবি করা হচ্ছে। দাবিটি অসত্য; ছবিটি মূলত ভারতের অন্ধ্র প্রদেশে মুসলমান এক সাধকের সমাধির। ইসলামের ইতিহাসের এক অধ্যাপক এএফপিকে বলেন, ইব্রাহীমের সমাধিটি জেরুজালেমের হেবরন শহরে অবস্থিত। 

ছবিটি গত ২৪ ডিসেম্বর, ২০২১ তারিখে ফেসবুকে এখানে শেয়ার করা হয়। 

পোস্টটির বাংলা ক্যাপশন ছিল, “হযরত ইব্রাহিম আঃ কবর সবাইকে দেখার সুজুক করে দেই। আমিন।” 

নবী ইব্রাহীম ইসলাম ধর্মে 'মুসলিম জাতির পিতা' হিসেবে এবং ইহুদী ও খ্রীস্টান ধর্মেও পূর্বপুরুষ হিসেবে শ্রদ্ধার পাত্রস্বরূপ বিবেচিত হন।

ছবিটি একইরকম দাবি সহকারে ফেসবুকে এখানেএখানেও শেয়ার হয়।  

দাবিটি অসত্য।

গুগল রিভার্স ইমেজ সার্চে দেখা যায় যে ছবিটির সাথে ভারতে মুসলমান এক সাধকের সমাধির মিল পাওয়া যায়। 

ভারতের ঐতিহ্যবাহী স্থানগুলো নিয়ে পরিচালিত একটি ভ্রমণ বিষয়ক ব্লগ সাইটে এরকম একটি ছবি পাওয়া যায়।  

সমাধিটি হযরত দাউদ শাহ ওয়ালী নামক এক মুসলমান সাধকের যা অন্ধ্র প্রদেশের একটি গ্রামে অবস্থিত।

নীচে বিভ্রান্তিকর ফেসবুক পোস্টের ছবি (বামে) ও ব্লগ সাইটের ছবির (ডানে) একটি তুলনামূলক স্ক্রীনশট দেওয়া হলো:

গুগল ম্যাপসে সার্চ করলে হযরত দাউদ শাহ ওয়ালীর সমাধির আরো ছবি পাওয়া যায় যার সাথে বিভ্রান্তিকর ফেসবুক পোস্টের ছবির মিল পাওয়া যায়। 

নীচে বিভ্রান্তিকর ফেসবুক পোস্টের ছবি (বামে) ও গুগল ম্যাপসে পাওয়া ছবির (ডানে) একটি তুলনামূলক স্ক্রীনশট দেওয়া হলো:  

ইব্রাহীমের সমাধি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের অধ্যাপক মো. আতাউর রহমান বিশ্বাস এএফপিকে বলেন, ইব্রাহীমের সমাধি প্রকৃতপক্ষে জেরুজালেমে অবস্থিত।  

তিনি বলেন, “এটা সর্বজনবিদিত যে, নবী ইবরাহীমের সমাধি জেরুজালেমের হেবরন শহরের ইবরাহীমী মসজিদে অবস্থিত।” 

বৃটেনের গার্ডিয়ান পত্রিকার এই প্রতিবেদন অনুযায়ী ইবরাহীম এবং তার স্ত্রী হেবরনে ইবরাহীমী মসজিদে সমাহিত আছেন। ইহুদীদের কাছে স্থানটি ‘কূলপিতাদের সমাধি’ নামে পরিচিত।

এএফপির প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০১৭ সালের জুলাই মাসে ইউনেস্কো পুরনো হেবরন শহরকে সংকটাপন্ন বিশ্ব ঐতিহ্য হিসেবে ঘোষণা করে এবং ইসরায়েল এর বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে।