সিরিয়ার পুরনো ঘটনার ভিডিও ভারতের বিপিন রাওয়াতের হেলিকপ্টার দুর্ঘটনার বলে প্রচার

কপিরাইট এএফপি ২০১৭-২০২২। সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত।

ফেসবুকে বিভিন্ন পেইজ আইডি থেকে একটি ভিডিও পোস্ট করে দাবি করা হচ্ছে এটি গত ৮ ডিসেম্বর ভারতের প্রতিরক্ষা প্রধান বিপিন রাওয়াত যে হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছে সেটির। এই দাবিটি অসত্য। ভিডিওটি ২০২০ সালে সিরিয়ার ইদলিবে বিদ্রোহীদের দ্বারা সরকারি বাহিনীর একটি হেলিকপ্টার ভূপাতিত করার খবরের সাথে প্রকাশিত হয়েছে।

ভিডিওটি ফেসবুকে এখানে পোস্ট করা হয়েছে গত ৮ ডিসেম্বর ২০২১ তারিখে। পোস্টটি আড়াই হাজারের বেশি বার শেয়ার এবং ১ লাখ ৩৫ হাজারের বেশি বার দেখা হয়েছে।

পোস্টে ভিডিওর ক্যাপশন দেয়া হয়েছে: "হেলিকপ্টার দূর্ঘটনায় প্রয়াত হলেন দেশের প্রথম সেনা সর্বাধিনায়ক বিপিন রাওয়াত"।

ভিডিওতে দুটি লেয়ারের উপরের অংশ একটি হেলিকপ্টারে আগুন ধরে ভূপাতিত হওয়ার দৃশ্য দেখা যাচ্ছে আর নিচের লেয়ারে জেনারেল বিপিন রাওয়াতের একটি পোর্ট্রেইট ছবি দেখা যাচ্ছে।

ভারতের প্রতিরক্ষা প্রধান জেনারেল বিপিন রাওয়াতকে বহনকারী রাশিয়ার তৈরি ভারতীয় সামরিক হেলিকপ্টার এমআই-১৭ গত ৮ ডিসেম্বর তামিল নাড়ুতে বিধ্বস্ত হয়। এতে হেলিকপ্টারে থাকা ১৩ জন নিহত হন বলে এএফপির খবরে বলা হয়েছে।

হেলিকপ্টার ভূপাতিতের ভিডিওটি একইরকম দাবি সহকারে ফেসবুকে  এখানে, এখানেএখানে  পোস্ট করা হয়েছে।

কিন্তু ভিডিওটি ভুল প্রেক্ষিতে শেয়ার করা হচ্ছে।

রিভার্স ইমেজ সার্চ করে এই ভিডিওর ফ্রেইমযুক্ত একটি নিবন্ধ Centre for Economics and Foreign Policy Studies (EDAM) এর ওয়েবসাইটে এখানে পাওয়া যায়।

নিবন্ধটি ২০২০ সালের ১২ ফেব্রুয়ারি প্রকাশিত হয় যেখানে সিরিয়ান আরব সশস্ত্র বাহিনীগুলোর বিরুদ্ধে তুরস্কের পাল্টা অভিযানের বিষয়ে লেখা হয়েছে। নিবন্ধে তুরস্ক সমর্থিত বিদ্রোহীদের দ্বারা একটি হেলিকপ্টার ভূপাতিত করার কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

ছবির ক্যাপশনে লেখা হয়েছে: "আল নেইরাবে সশস্ত্র বিরোধীরা একটি এমআই হেলিকপ্টার গুলি করে ভূপাতিত করেছে"।

নিচে ভাইরাল ভিডিও (বামে) এবং EDAM এর নিবন্ধে ব্যবহৃত ছবির (ডানে) তুলনামূলক স্ক্রিনশট তুলে ধরা হলো:

কীওয়ার্ড সার্চ করে ভিডিওটি এর আগে ২০২০ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি --ভারতের প্রতিরক্ষা প্রধান বিপিন রাওয়াত হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় নিহত হওয়ার এক বছরেরও বেশি সময় আগে-- টুইটারে এখানে পাওয়া গেছে।

নিচে ভাইরাল ভিডিও (বামে) এবং টুইটে পোস্ট করা ভিডিওর (ডানে) তুলনামূলক স্ক্রিনশট তুলে ধরা হলো:

আরও সার্চ করে ইউটিউবে এসোসিয়েটেড প্রেস এর এই ভিডিও রিপোর্টটি পাওয়া গেছে যেটির ফুটেজ ভাইরাল হওয়া ভিডিওর সাথে মিলে যায়।

ভিডিও ক্যাপশনে লেখা হয়েছে: "বিরোধী কর্মীরা (১১ ফেব্রুয়ারি) জানিয়েছেন, সিরিয়ান বিদ্রোহীরা দেশটির উত্তরপশ্চিমাঞ্চলে সেনাবাহিনীর অভিযানের সময় সরকারি একটি হেলিকপ্টার মঙ্গলবার ভূপাতিত করেছে বলে দাবি করেছে।"

এর আগে এএফপি একই ফুটেজ ভুল দাবিসহকারে ছড়িয়ে পড়ার পর সেগুলো খণ্ডন করেছে। পড়ুন এখানেএখানে