২০১৬ সালের এই ছবিতে মেক্সিকোতে এক শিক্ষকের কোলে তার ছাত্রীর বাচ্চাকে দেখা যাচ্ছে 

কপিরাইট এএফপি ২০১৭-২০২২। সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত।

সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে বেশকিছু পোস্টে একটি ছবি শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে যে, ছবিটিতে স্ত্রী মারা যাওয়ার কারণে নিজের বাচ্চাকে কোলে নিয়ে এক শিক্ষক ক্লাস নিচ্ছেন। দাবিটি বিভ্রান্তিকর। ছবিটির শিক্ষক একজন মেক্সিকান যিনি ২০১৬ সালে নিজের ফেসবুক পোস্টে ছবিটি শেয়ার করে জানান, বাচ্চাটি তার একজন ছাত্রীর। তাকে সহায়তার জন্য তিনি বাচ্চাটিকে কোলে নিয়েছিলেন।

ছবিটি গত ৩০ আগস্ট ফেসবুকে এখানে শেয়ার করা হয়।

পোস্টটির ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, ''সন্তান জন্ম দিতে গিয়ে মারা গেছেন মা, বাবা এই ভাবেই বাচ্চা কোলে নিয়ে নিজের শিক্ষকতা করছেন।''

একই রকম পোস্ট ফেসবুকে এখানে এখানে শেয়ার করা হয়।

দবিটি বিভ্রান্তিকর।

গুগল রিভার্স ইমেজ সার্চে ছবিটি ২০১৬ সালের ১৩ জুলাই প্রকাশিত 'সিএনএন স্প্যানিশ' এর এই প্রতিবেদনে পাওয়া যায়।

প্রতিবেদনটির শিরোনাম ছিল, ''ছাত্রীকে নোট নিতে সহায়তা করতে শিক্ষক তার বাচ্চাকে কোলে নিলেন।''

প্রতিবেদনে বলা হয়, ''মেক্সিকান এক শিক্ষক তার ছাত্রীকে নোট নিতে সহায়তা করার জন্য তার বাচ্চা কোলে নেয়ার একটি ছবি ফেসবুকে পোস্ট করেন।''

এতে ছবির ব্যক্তির নাম ময়েসেস রেইস সান্ডোভাল বলে উল্লেখ করা হয় যিনি মেক্সিকোর আকাপুলকো শহরের ইন্টার-আমেরিকান ইউনিভার্সিটি ফর ডেভেলপমেন্ট এর একজন আইনের অধ্যাপক।

প্রতিবেদনটিতে সান্ডোভালের ফেসবুক পেজের ২০১৬ সালের ৬ জুলাইয়ের একটি পোস্টের লিঙ্ক দেয়া হয় যেখানে তিনি এই ছবিটি পোস্ট করেন।  

পোস্টটিতে তিনি লিখেন, ''আমার একজন ছাত্রী আছে যে বিভিন্ন দায়িত্ব থাকা সত্ত্বেও স্কুল ছেড়ে দেয়নি। তাই আমি তার বাচ্চাটিকে কোলে নিই যাতে সে নিরবিচ্ছিন্নভাবে নোট নিতে পারে। #আকাপুলকো''

পোস্টটি ইতোমধ্যে ২১ হাজারের মতো শেয়ার হয়েছে।

কয়েকটি মেক্সিকান সংবাদমাধ্যমেও ছবিটি নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। দেখুন এখানে এখানে