এই ছবিটি ২০২০ এ বুড়িগঙ্গায় লঞ্চডুবির ঘটনায় উদ্ধারকৃত লাশের

কপিরাইট এএফপি ২০১৭-২০২২। সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত।

ফেসবুকে বেশকিছু পোস্টে একটি ছবি শেয়ার করে সেটিকে ২০২১ সালের ২৭ আগস্ট ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নৌকাডুবির ঘটনায় উদ্ধারকৃত লাশের ছবি বলে দাবি করা হচ্ছে। দাবিটি অসত্য; মূলত এটি ২০২০ এর জুন মাসে ঢাকায় বুড়িগঙ্গা নদীতে লঞ্চডুবির পর উদ্ধার করা মৃতদেহের ছবি।

গত ২৮ আগস্ট ফেসবুকে এখানে ছবিটি শেয়া করা হয়। 

পোস্টটিতে ছবিটিকে দেশের পূর্বাঞ্চলীয় জেলা ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নৌকাডুবির ঘটনার পরবর্তী দৃশ্য বলে দাবি করা হয়। 

ফেসবুকে পোস্টের বাংলা ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, ''ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ইতিহাসের মর্মান্তিক নৌ দূর্ঘটনা। এত লাশ একসাথে কখনো দেখিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়াবাসী... ব্রাহ্মণবাড়িয়াতে নৌকা ডুবি ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৫১ জনকে মৃত ঘোষনা করা হয়েছে। স্তব্ধ আজ ব্রাহ্মণবাড়িয়াবাসী, আল্লাহ সকল শহিদদের জান্নাতের উচ্চ মাকাম দান করুন আমিন।''

গত ২৭ আগস্ট ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় যাত্রীবাহী একটি নৌকার সাথে বালু বোঝাই নৌযানের সংঘর্ষে নৌকাটি ডুবে গেলে ২০ জনের অধিক প্রাণ হারান। এএফপির প্রতিবেদন দেখুন এখানে। 

ফেসবুকে একই দাবি সহকারে ছবিটি এখানেএখানে শেয়ার করা হয়। 

প্রকৃতপক্ষে ছবিটিকে বিভ্রান্তিকরভাবে পোস্ট করা হয়েছে। 

গুগল রিভার্স ইমেজ সার্চে বাংলাদেশি অনলাইন সংবাদমাধ্যম বিডিনিউজ২৪ ডটকমের এই প্রতিবেদনে ছবিটির একটি রঙ্গিন সংস্করণ পাওয়া যায়।

প্রতিবেদনটির শিরোনাম ছিল, ''বাংলাদেশে ভয়াবহ নৌ দূর্ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন।''

প্রতিবেদনটি অনুযায়ী ২০২০ সালের ২৯ জুন ছবিটি তোলেন বিডিনিউজ২৪ এর ফটোগ্রাফার মাহমুদ জামান অভি। 

ছবির ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, ''সোমবার ঢাকার শ্যামবাজারের কাছে বুড়িগঙ্গা নদীতে আরেকটি নৌযানের সাথে সংঘর্ষে ডুবে যাওয়া লঞ্চ থেকে উদ্ধারকৃত মৃতদেহের সারি।'' 

২০২০ সালের ২৯ জুন এএফপি'র এক রিপোর্টে বলা হয়, বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকায় এক ফেরি দুর্ঘটনায় অন্তত ৩২ জন নিহত হয়েছেন।

নীচে বিভ্রান্তিকর ফেসবুক পোস্টের ছবি (বামে) ও বিডিনিউজ২৪ এর ছবির (ডানে) একটি তুলনামূলক স্ক্রিনশট দেওয়া হলো: